শিরোনাম
প্রচ্ছদ / সিঙ্গাপুর / অর্থ-সম্পদ নিয়ে প্রেমিকের হাত ধরে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

অর্থ-সম্পদ নিয়ে প্রেমিকের হাত ধরে সিঙ্গাপুর প্রবাসীর স্ত্রী উধাও

সিরাজগঞ্জে প্রেমের টানে প্রবাসী স্বামীর প্রায় আড়াই লাখ টাকা ও আড়াই ভরি স্বর্ণালংকার নিয়ে পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে গেছেন অনামিকা খাতুন (২০) এক গৃহবধূ। তিনি রাশিদাজ্জোহা মহিলা কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী।

গত (৯ অক্টোবর) সোমবার শহরের দিয়ারধানগড়া মহল্লার বাবার বাড়ি থেকে অনামিকা খাতুন কলেজ যাওয়ার কথা বলে স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা নিয়ে পরকীয়া প্রেমিক রাসেল আহম্মেদের হাত ধরে পালিয়ে যান। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে না পেয়ে প্রবাসী সেলিম রেজার বাবা আব্দুস সালাম সরকার বেলকুচি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেলকুচি উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের ব্রাহ্মণবাড়িয়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে সিঙ্গাপুর প্রবাসী সেলিম রেজার সাথে চার বছর আগে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার দিয়ারধানগড়া মহল্লার আলমগীর হোসেনের মেয়ে অনামিকা খাতুনের বিয়ে হয়।

সংসারে অভাব-অনটনের কারণে প্রায় তিন বছর আগে জীবিকার তাগিদে সেলিম রেজা বিদেশ পাড়ি জমান। স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে স্ত্রী অনামিকা খাতুন শহরের হোসেনপুর মহল্লার রাসেল আহম্মেদের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন। পরকীয়ার কারণে স্বামীর পাঠানো টাকা ইচ্ছেমত খরচসহ প্রেমিক রাসেলকে দিতেন অনামিকা।

এ বিষয়ে বুধবার বিকেলে অনামিকার বাবা আলমগীর হোসেন বলেন, আমার মেয়ে বাড়িতে নেই। তবে কোথায় আছে কার কাছে আছে সে বিয়য়ে আমি অবগত নই।

পরকীয়া প্রেমিক রাসেল আহম্মেদ বলেন, অনামিকা তার আগের স্বামীকে ডিভোর্স দিয়েছে। আমি তাকে বিয়ে করে সংসার করছি। এখন সে আমার স্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, অনামিকার আগের স্বামী সেলিম রেজা বিদেশ যাওয়ার পর থেকে তার কোনো খোঁজ-খবর নিত না এমনকি অনামিকার কোনো খরচও দিত না। তাই তাকে ডির্ভোস দিয়ে অনামিকা আমাকে বিয়ে করেছে।