Warning: mysqli_num_fields() expects parameter 1 to be mysqli_result, boolean given in /home/nhcaltgo/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 3182
class="post-template-default single single-post postid-10524 single-format-standard">
শিরোনাম

Warning: mysqli_num_fields() expects parameter 1 to be mysqli_result, boolean given in /home/nhcaltgo/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 3182
প্রচ্ছদ / একসাথে ভয়ানক ভাবে নিজের দুই মেয়েকে ধর্ষণ করলো বাবা অতঃপর!

একসাথে ভয়ানক ভাবে নিজের দুই মেয়েকে ধর্ষণ করলো বাবা অতঃপর!

মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে ‘বাবা’ আটক… দু’জন কিশোরী মেয়ে অভিযোগ করে বলেছে, তাদের বাবা দিনের পর দিন তাদের দুই বোনকে ধর্ষণ করতেন। এ ঘটনায় মুম্বাইয়ের এক ফ্যাশন ডিজাইনারকে আটক করেছে পুলিশ। ৪২ বছরের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলাও নথিভুক্ত করা হয়েছে।

আগামী ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত তাকে পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত মুম্বাইয়ের বাকোলা এলাকার বাসিন্দা। চার সন্তানের বাবা ওই ফ্যাশন ডিজাইনারের বিরুদ্ধে প্রথমে মুখ খোলে তারই বড় মেয়ে।

১৭ বছর বয়সী ওই কিশোরীর দাবি, বছর দুয়েক ধরেই তাকে ধর্ষণ করছেন তার বাবা। একাদশ শ্রেণির ওই ছাত্রী আরো দাবি করেন, গত নভেম্বরে তার ১৩ বছরের বোনের সঙ্গেও একই ঘটনা ঘটিয়েছেন তাদের বাবা। এ নিয়ে কাউকে কিছু বলতে নিষেধ করেছিলেন তিনি। এমনকী, তার তিন বছরের ভাইকেও মেরে ফেলার হুমকি দেন।

পুলিশের কাছে দেওয়া বয়ানে কিশোরী অভিযোগ করেন, অত্যাচারের বিষয়ে কাউকে কিছু জানালে তাদের পড়াশোনার খরচ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছিল বাবা। গত রবিবার গোটা বিষয়টা মাকে জানায় সে।

কিশোরীর আরো দাবি, এ নিয়ে বাবার মুখোমুখি হলে মাকে মারধরও করেন তিনি। পরের দিন মেয়েদের নিয়ে বাকোলা থানায় ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন তার স্ত্রী।

অভিযুক্তের নাম প্রকাশ না করলেও বাকোলা থানা পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ‘প্রোটেকশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সেস আইন’ ছাড়াও একাধিক ধারায় মামলা করা হয়েছে। ওই মেয়ের মেডিক্যাল টেস্টও করানো হবে। তাছাড়া, দুই কিশোরীকে একটি হোমে পাঠানো হয়েছে।

প্রবাসীদের সকল ভিডিও খবর ইউটিউবে দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি:

Warning: mysqli_num_fields() expects parameter 1 to be mysqli_result, boolean given in /home/nhcaltgo/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 3182