শিরোনাম
প্রচ্ছদ / মালয়েশিয়া / দেরিতে আসা লাগেজ বাড়ি পৌঁছে দিবে মালয়েশিয়ান এয়ার

দেরিতে আসা লাগেজ বাড়ি পৌঁছে দিবে মালয়েশিয়ান এয়ার

এক সময় বুকিং দেওয়া লাগেজ কোনো কারণে যাত্রীর সাথে একই প্লেনে এসে না পৌঁছলে হয়রানির অন্ত ছিলো না। এয়ারপোর্ট ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয় থেকে উদ্যোগ নেওয়ার প্রায় দু’বছর পর প্রথমবারের মতো যাত্রীদের লাগেজ বাড়ি পৌঁছে দেবার সার্ভিস চালু করেছে মালয়েশিয়ান এয়ার।

২২ মে মঙ্গলবার রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ম্যাজিস্ট্রেট জানান, এ মাইলস্টোন ফর আওয়ার এয়ারপোর্ট। পৃথিবীর প্রায় সব দেশে বুকিং ব্যাগ কোন কারণে যদি যাত্রীর সাথে না আসে, তা পরে এলে (লেফ্ট বিহাইন্ড ব্যাগেজ) এয়ারলাইন্স নিজ দায়িত্বে তা যাত্রীর ঘরে পৌঁছে দেয়। আর আমাদের দেশে ঘরে পৌঁছে দেয়া তো দূরের কথা, ব্যাগ এলে যাত্রীকে ফোন করে খবরটি পর্যন্ত দেয়া হতো না। যাত্রীরা ব্যাগের জন্য দিনের পর দিন এয়ারপোর্টে লেফ্ট-রাইট করতে থাকেন।

আজ থেকে বছর দু’য়েক আগে এ বিষয়ে ম্যাজিস্ট্রেটের কার্যালয় থেকে আমরা উদ্যোগ নিয়েছিলাম। দীর্ঘ দু’বছর এর উপর কাজ করেছি। বাহিরের এয়ারপোর্টগুলো থেকে এসওপি এনে আমাদের আত্নসামাজিকতার অবস্থার প্রেক্ষিতে স্ট্যাডি করেছি।

তিনি জানান, কাজটিতে এয়ারপোর্টের একাধিক সংস্থাসহ আমাদের দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থাও কাজ করেছে। এই সংস্থা রাজী হয়তো, ঐ সংস্থা রাজী হয় না। আমরা থেমে যাইনি। সবকিছু গুছিয়ে আনার পর এবার ভেন্ডার পাওয়া যায় না। তাও থামিনি। কতজন হাসাহাসি করছে, থামিনি। ইয়া… আমাদের দু’বছরের চেষ্টার প্রথম সফলতা। এওসি’র চেয়ার এয়ারলাইন্স হিসেবে মালেশিয়ান এয়ার প্রথম সমগ্র বাংলাদেশে তাদের যাত্রীদের লেফ্ট বিহাইন্ড ব্যাগেজ হোম ডেলিভারি সার্ভিস চালু করেছে।

অন্যান্য এয়ারলাইন্স ভেন্ডরের সাথে দরাদরিতে আছে। সহসায় চালু করবে।
আমার রুমের সিলিং থাকুক আর নাইবা থাকুক, কাজ কিন্তু চলবেই।’

মালয়েশিয়ান এয়ারের সাথে সাথে অন্যান্য এয়ারলাইন্সগুলোও বাংলাদেশে এই সেবা চালু করলে যাত্রী হয়রানি অনেকাংশে কমে যাবে বল মনে ক রছেন ভুক্তভোগীরা।

প্রবাসীদের সকল ভিডিও খবর ইউটিউবে দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি: