শিরোনাম
প্রচ্ছদ / প্রতিদিন হচ্ছে রিংগিতের দরপতন, হতাশায় প্রবাসীরা।

প্রতিদিন হচ্ছে রিংগিতের দরপতন, হতাশায় প্রবাসীরা।

মালয়েশিয়ায় গত ১৮ বছরের মধ্যে রিংগিতের মান সবচেয়ে কমেছে। ১৯৯৮ সালের পর এ বছরই রিংগিতের মান এতটা কমেছে। বর্তমানে ১ ডলারের বিপরীতে রিংগিতের মূল্য ৪ দশমিক ৪৮ রিঙ্গিতে এসে ঠেকেছে। ১৯৯৮ সালের জানুয়ারিতে রিংগিতের পতন দেখা গিয়েছিল। কিন্তু এ বছর সেই পতনকেও হার মানিয়েছে। কুয়ালালামপুরের স্থানীয় ব্যাংকগুলোতে সোমবার সকাল ৯টা ৫২ মিনিট পর্যন্ত রিঙ্গিতের অর্থমূল্য ডলারের বিপরীতে ৪ দশমিক ৪৮-তে নেমে আসে। মার্কিন নির্বাচনের পরপরই রিংগিতের মূল্য ৬ শতাংশেরও বেশি কমে গিয়েছিল।

এশিয়ার উদীয়মান বাজারে এটাই সবচেয়ে বড় পতনের ঘটনা। ১৯৯৮ সালের জুলাই মাসে এক ডলারের বিপরীতে এ মূল্য ৩ দশমিক ৮৮ রিঙ্গিতে নেমে এসেছিল। তেল রপ্তানির ঘাটতি থেকে মালয়েশিয়া সরকারের আয় অনেক কমে গেছে। এর ফলে অতিমন্দায় প্রভাবিত হয়ে মার্কিন সুদের হারে পিষ্ট হতে হচ্ছে দেশটিকে। এছাড়া গত নভেম্বরে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নতুন পদক্ষেপও এ ক্ষেত্রে বড় ধরনের ধাক্কা হিসেবে কাজ করেছে।

২০১৩ সালের ডিসেম্বরের পর থেকেই ডলারের বিপরীতে রিঙ্গিতের মূল্য পড়তে শুরু করেছে। ২০১৩ সালের অক্টোবরে ১ ডলারের বিপরীতে রিঙ্গিতের মূল্য ছিল ২ দশমিক ৯৭। কিন্তু ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ১ ডলারের বিপরীতে রিঙ্গিতের মূল্য দাঁড়ায় ৩ দশমিক ৪০।

অর্থনৈতিক এ পতন ঠেকাতে গত বছরের এপ্রিলে জিএসটি (গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স) চালু করে মালয়েশিয়া সরকার। নাগরিকদের অসন্তুষ্টির মুখেও প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজ্জাক নিজে একটি দোকানে জিএসটি প্রদান করে পণ্য ক্রয়ের মাধ্যমে এই ট্যাক্স গ্রহণ কার্যক্রম শুরু করেন। ৬ শতাংশ ট্যাক্স যোগ হওয়ার ফলে ১শ’ রিঙ্গিতের পণ্যের সঙ্গে সেবা গ্রহণকারী বা ক্রেতাকে দিতে হচ্ছে ১০৬ রিঙ্গিত।

প্রবাসীদের সকল ভিডিও খবর ইউটিউবে দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি:

Warning: mysqli_num_fields() expects parameter 1 to be mysqli_result, boolean given in /home/nhcaltgo/public_html/wp-includes/wp-db.php on line 3182