শিরোনাম
প্রচ্ছদ / মালয়েশিয়া / মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানের সন্ধান শেষে যে রহস্য ফাসঁ করলো উদ্ধার কারী সংস্থা!

মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমানের সন্ধান শেষে যে রহস্য ফাসঁ করলো উদ্ধার কারী সংস্থা!

মালয়েশিয়ার নিখোঁজ বিমান এয়ার এশিয়ার এমএইচ৩৭০ ফ্লাইটের খোঁজে বেসরকারি অর্থায়নে অনুসন্ধান আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হয়েছে। নিখোঁজ বিমানের খোঁজ মেলেনি।

বিমানটির খোঁজে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক কোম্পানি ওশেন ইনিফিনিটি দক্ষিণ ভারত মহাসাগরের বিশাল অঞ্চল জুড়ে একটি গভীর সমুদ্রযান দিয়ে ৯০ দিনের একটি জরিপ চালায়। তবে তারা বিমানটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পেতে ব্যর্থ হয়।

মালয়েশিয়া সরকার জানিয়েছে, বিমানটির খোঁজে নতুন অনুসন্ধান চালানোর আর কোনো পরিকল্পনা তাদের নেই। ২০১৪ সালের ৮ মার্চ কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় বিমানটি। এতে ২৩৯ আরোহী ছিল।

বিমানটি কীভাবে নিখোঁজ হয় তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। বিমানের নিখোঁজ যাত্রীদের স্বজনরা চান, বিমানের খোঁজে অনুসন্ধান চলুক।

এমএইচ৩৭০ ফ্লাইটের আরোহী ছিলেন গ্রেস নাথানের মা। গ্রেস নাথান বলেন, ‘মানুষ মনে করতে পারে, চার বছর আগে ঘটে যাওয়া একটি বিষয় নিয়ে এখনো আলোচনার কী প্রয়োজন। তবে তাদেরকে মনে রাখতে হবে, এমএইচ৩৭০ কোনো ইতিহাস নয়।’

বিমানের ২৩৯ জন আরোহীর মধ্যে ১৫৩ জন চীনের, ৩৮ জন মালয়েশিয়ার এবং অন্যান্যের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, ইন্দোনেশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ভারত, ফ্রান্স, নিউ জিল্যান্ড, ইউক্রেন, রাশিয়া, তাইওয়ান ও নেদারল্যান্ডসের নাগরিক ছিলেন। বিমানটিতে ক্রুর সংখ্যা ছিল ১২।

নিখোঁজ বিমানটির খোঁজে বিমান চালনা ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অনুসন্ধান চালানো হয়। ভারত মহাসাগরের ১ লাখ ২০ হাজার বর্গ কিলোমিটারের বেশি জায়গায় অনুসন্ধান কাজ পরিচালনা করা হয়।

প্রবাসীদের সকল ভিডিও খবর ইউটিউবে দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি: