শিরোনাম
প্রচ্ছদ / মালয়েশিয়া / মালয়েশিয়ায় গ্লোব ফ্যাক্টরিতে কাজের সময় হাত পা কেটে আলাদা হয়ে ২ দিন হাসপাতালে থাকার পর প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু !

মালয়েশিয়ায় গ্লোব ফ্যাক্টরিতে কাজের সময় হাত পা কেটে আলাদা হয়ে ২ দিন হাসপাতালে থাকার পর প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু !

পরশু দিন মালয়েশিয়ার ক্লাং-এলাকায় গ্লোব ফ্যাক্টরিতে কাজ করা অবস্থায় এই ভাইয়ের হাত কেটে আলাদা হয়ে যায়। পরে হাসপাতালে ২দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ তিনি না ফেরার দেশে পাড়ি গেছেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ্‌ যাতে তাকে জান্নাত দান করে আমিন।


আরো পড়ুন……..
মালয়েশিয়ায় মানব পাচারের অভিযোগে ৬ ইমিগ্রেশন পুলিশ অফিসার গ্রেপ্তার!

মালয়েশিয়া আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট থেকে গত ২৮ই সেপ্টেম্বর ব্লাকলিষ্টেড অবৈধ অভিবাসেদের কে মালয়েশিয়া থেকে প্রবেশ ও বাহির হওয়ার ক্ষেত্রে জড়িত থাকায় এবং সহায়তা করায় মোট ছয় জন ইমিগ্রেশন পুলিশ অফিসার কে আটক করা হয়ে তাদের কর্মস্থল থেকে । তাদের বয়স যথাক্রমে ২৭ -৩৬ বছর মালয়েশিয়ান এন্টি কোরাপশন ডিপার্টমেন্ট এ ব্যাপারে তদন্ত ও ইনভেস্টিগেশন করেন, ২০১৭ সালেও দূর্নিতির দায়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল আরো কিছু সংখ্যক ইমিগ্রেশন পুলিশ কে ।

কয়েকটা দেশের ব্লাকলিস্টেড অভিবাসীদের কে মালয়েশিয়াতে প্রবেশ করার সুযোগ করে দেন এই ইমিগ্রেশন অফিসার এবং যার এন্টি কোরাপশন বিভাগ তাদের সুষ্ঠ তদন্তে নিশ্চিতকরণ করার পর গত শুক্রবারদিন সকাল ১২টায় তাদের কে কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট টার্মিনাল ১ থেকে আটক করেন , এসব ইমিগ্রেশন পুলিশ বাংলাদেশ, মায়ানমার, ইন্দোনেশিয়া, চায়না সহ আরো বেশ কয়েকটি দেশের দেশের নাগরিকদের কে মালয়েশিয়ায় অবৈধ ভাবে অনুপ্রবেশ এর সুযোগ করে দেয় এবং এ ক্ষেত্রে তাদের বিরুদ্ধে মানব পাচার এর অভিযোগ আনা হয়েছে ।

মালয়েশিয়ার কয়েকটি জাতীয় পত্রিকায় বিভিন্না প্রতিবেদনের বলা হয়েছে এ দেশের নানা দেশের অভীবাসিদের কে পুঁজি করে গড়ে উঠেছে কয়েকটি সিন্ডিকেট যারা কিনা অবৈধ ভাবে অনুপ্রবেশ এর জন্য বড় অংকের টাকা গ্রহন করে থাকতেন প্রবাসীদের থেকে আর সব থেকে বেশি টাকা নেওয়া হত বাংলাদেশীদের থেকে । আটককৃত ছয় জন পুলিশ অফিসারের সব কিছু তদন্ত করে দেখতে পায় তাদের বিলাসবহুল জীবনযাপন ও কর্মকান্ড তাদের প্রতি মাসে ষাট লাখ টাকার বেশি আসত এই সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ।

ইমিগ্রেশন প্রধান সেরি মোস্তফার আলী জানান ইমিগ্রশন অফিসারদের একটি কালো তালিকা করা হয়েছে এবং তারা যদি দুর্নীতির সাথে জড়িত থাকে তবে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যাবস্থা নেওয়া হবে । অপরদিকে মালয়েশিয়াতে অপারেসি মেগা থ্রি চলমান থাকায় আত্নগোপন করে থেকেও রেহাই পাচ্ছেন না প্রবাসী অভিবাসীরা খুজে খুজে তাদের কর্মস্থান এমনকি থাকার জায়গা থেকেও আটক করা হচ্ছে তাদের কে আর বর্তমানে জরিমানা দিয়েও দেশে ফিরে যাওয়ার পথ সম্পুর্ন ভাবে বন্ধ । এছাড়া কাগজপত্র থাকা সত্যেও অনেক হয়রানীর স্বীকার হতে হচ্ছে অনেক কেই ।

তবে বেশ কিছুদিন আগে মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী আশ্বাস দিয়েছেন খুব শীঘ্রই অবৈধ শ্রমিকদের কে বৈধকরন করা হবে এবং বৈধ কর্মীদের কেও আর হয়রানীর স্বীকার হতে হবে না ।

প্রবাসীদের সকল ভিডিও খবর ইউটিউবে দেখতে সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি: